গাছে বেঁধে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রহরীকে নির্যাতনকারী গ্রেফতার

সংবাদ শেয়ার করুন
  • 73
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    73
    Shares

নিজেস্ব প্রতিবেদক::

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার শিমুলবাক ইউনিয়নে মুক্তাখাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তোফায়েল আহমদ (৩০) নামের এক প্রহরীকে গাছে বেঁধে প্রকাশ্যে নির্যাতন করায় নির্যাতনকারী শাহ নূর আলী (৩৫)কে গ্রেফতার করেছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জামালগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান করে পুলিশ। ভোররাতে ওই উপজেলার লালপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশবাহিনী।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ওসি কাজি মুক্তাদির হোসেনের নির্দেশে পুলিশের এ অভিযানে নের্তৃত্বদের সাব ইন্সপেক্টর (এসআই)  জয়নাল আবেদীন।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, মুক্তাখাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরীকে গাছে বেঁধে প্রকাশ্যে নির্যাতন করে একই গ্রামের মনোয়ার আলীর ছেলে শাহ নূর আলী। নির্যাতনের এই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর আত্মগোপনে চলে যায় নির্যাতনকারী শাহ নূর আলী। তাকে গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রেখেছিলো পুলিশ। সব শেষ গোপন সংবাদে জানতে পেরে জামালগঞ্জের লালপুরে গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় তারা।

এব্যাপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজি মুক্তাদির হোসেন বলেন, এ ঘটনা সম্পর্কে আমরা যখন থেকে জেনেছি তখন থেকেই তৎপর ছিলাম। আমাদের অভিযান চলছিলো। সর্বশেষ আমরা জামালগঞ্জে তার উপস্থিতির খবর জানতে পেরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেছি। তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, মুক্তাখাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রহরী নিয়োগ পরীক্ষায় নির্যাতনকারী শাহ নূর আলী ও নির্যাতনের স্বীকার তোফায়েল আহমদ চাকরী প্রার্থী ছিলেন। সে পরীক্ষায় নিজের যোগ্যতার পরিচয় দিয়ে নিয়োগ পান তোফায়েল। তখন থেকেই শাহ নূরের রোষানলে পরেন তোফায়েল। এরই মধ্যে শাহ নূরের এক লক্ষ টাকা পাওনাও হয় তোফায়েলের কাছে। সব মিলিয়ে গত মঙ্গলবার মধ্যযুগীয় কায়দায় ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটায় শাহনূর আলী। পরে এ ঘটনার স্বীকার তোফায়েল নিজে বাদী হয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানায় মামলা করেন। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *